রাত ১১:১১ | বৃহস্পতিবার | ১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং | ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

প্রাণ আপ

pran-up-add

মিয়ানমারকে ঢাকার সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ার সুপারিশ করেন || কফি আনান

চলমান রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বাংলাদেশের সঙ্গে মিয়ানমারকে সুসম্পর্ক গড়ে তোলার সুপারিশ করেছে জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানের নেতৃত্বে রাখাইন কমিশন।

সেখানে আরো বলা হয়েছে, বাংলাদেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক নিশ্চিত না করলে মিয়ানমারের এ সংকটের সমাধান সম্ভব নয়।

মিয়ানমার ও বাংলাদেশ সরকারের উচিত যৌথভাবে যাচাই-বাছাই করে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো।

এ ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক মান নিশ্চিত করতে বৈশ্বিক সংস্থাগুলোর সহযোগিতা নেওয়া যেতে পারে।

বাংলাদেশ থেকে রোহিঙ্গাদের ফেরত নেওয়া, রাখাইনে ফেরত নেওয়া রোহিঙ্গাদের জন্য নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করার সুপারিশ করে কমিশন বলেছে, যাদের ঘরবাড়ি ধ্বংস করা হয়েছে, প্রয়োজনে মিয়ানমার সরকার তাদের জন্য ঘরবাড়ি নির্মাণ করে দেবে।

বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের যৌথ বাণিজ্য কমিশনকে আরো সক্রিয় করে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য জোরদার করার সুপারিশ করেছে আনান কমিশন। সুপারিশে কমিশন বলেছে, পারস্পরিক বোঝাপড়া ও সহযোগিতা বাড়াতে মিয়ানমার ও বাংলাদেশ সরকার দুই দেশের মধ্যে সুধী সমাজের সফর বিনিময়, থিংক ট্যাংক, শিক্ষাবিদ ও বেসরকারি খাতের সফর বিনিময় করতে পারে।

আনান কমিশনের অন্তর্বর্তীকালীন প্রতিবেদনে বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক, চ্যালেঞ্জ এবং পারস্পরিক স্বার্থ ও সুবিধাদি নিয়ে আলোচনার জন্য একটি কমিশন গঠনের সুপারিশ করা হয়েছিল।

মিয়ানমার সরকার বাংলাদেশের সঙ্গে এ ধরনের কমিশন গঠনের আগ্রহ প্রকাশ করায় চূড়ান্ত প্রতিবেদনে একে স্বাগত জানিয়েছে কমিশন।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, এই যৌথ কমিশন অন্ততপক্ষে প্রতি তিন মাস অন্তর একবার করে বৈঠক করে বাণিজ্য সম্প্রসারণ, অবকাঠামো উন্নয়ন, দুই দেশের জনগণের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়ন, অবৈধ অভিবাসন ব্যবস্থাপনা, রোহিঙ্গাদের দলিলাদি তৈরি করা, মানবপাচার ও মাদকপাচার প্রতিরোধে যৌথভাবে উদ্যোগ নেওয়া এবং সহিংসতা প্রতিরোধে ভূমিকা রাখবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাখাইন রাজ্যের সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশের সঙ্গে মিয়ানমারের শক্তিশালী দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক থাকতে হবে। কারণ এক দেশের কোনো ঘটনা অন্য দেশকেও মারাত্মকভাবে প্রভাবিত করে।

২০১৬ সালে রাখাইনে সহিংসতার পর বিপুলসংখ্যক মুসলিম রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। সীমান্তের দুই পাড়েই মানবিক সহায়তা জরুরি হয়ে পড়েছে। তা সত্ত্বেও পারস্পরিক সহায়তার সুযোগ উভয় দেশের জন্যই স্বার্থ বয়ে আনবে।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ও পুলিশ রোহিঙ্গাদের উপর আক্রমণ করে। তখন প্রায় এক লাখ রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নেয়। ওই ঘটনার প্রেক্ষাপটেই আনান কমিশন গঠিত হয়।

কমিশন একটি অন্তর্বর্তী রিপোর্ট জমা দেয় গত মার্চে। এরপর গত ২৪ আগস্ট সুপারিশসহ চূড়ান্ত প্রতিবেদন মিয়ানমার সরকারের কাছে জমা দেওয়ার পর থেকে রোহিঙ্গাদের ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দিচ্ছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ছাত্রলীগে ঠিকাদার, কাশিয়ানিতে মহাসড়ক অবরোধ

» আকাশ পরিষ্কার হবে সোমবার, তারপরেই বাড়ছে শীত

» জেতার যোগ্য প্রার্থী দেবে আওয়ামী লীগ || ওবায়দুল কাদের

» ঢাকা উত্তর সিটিতে প্রার্থী তালিকায় আলোচিত যারা

» একজন অত্যন্ত জনদরদী নেতা

» “নেশা মুক্ত সমাজ গড়ি এসো সবাই খেলা ধুলা করি” BWFA

» ভুয়া পুলিশ পরিচয়ে ছিনতাইকারী ও উত্ত্যক্তকারীকে ধরিয়ে দিন

» ওজাব আলফাডাঙ্গা উপজেলা কমিটি গঠন || পলাশ সভাপতি, শিশির সাধারন সম্পাদক

» ঠাকুরগাঁওয়ের গনিকে বাঁচাতে আর্থিক সাহায্য দরকার!

» কাশিয়ানী উপজেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি ঘোষণা

» হিজরাও মানুষ, একজন হিজরা হয়ে ব্লাড ডোনেট করতে পারলে আপনি কেন পারেন না??

» রংপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিতে জনবল নিয়োগ

» বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে নিয়োগ

» দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরে নতুন নিয়োগ

» ঢাকা-১৬ (পল্লবী ও রুপনগর)আগামি সংসদ নির্বাচনে জনগণ নৌকা প্রতীকে দেখতে চাই…|| বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব মাকসুদুল ইসলামকে

Biggapon

Biggapon

সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

,

মিয়ানমারকে ঢাকার সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ার সুপারিশ করেন || কফি আনান

চলমান রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বাংলাদেশের সঙ্গে মিয়ানমারকে সুসম্পর্ক গড়ে তোলার সুপারিশ করেছে জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানের নেতৃত্বে রাখাইন কমিশন।

সেখানে আরো বলা হয়েছে, বাংলাদেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক নিশ্চিত না করলে মিয়ানমারের এ সংকটের সমাধান সম্ভব নয়।

মিয়ানমার ও বাংলাদেশ সরকারের উচিত যৌথভাবে যাচাই-বাছাই করে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো।

এ ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক মান নিশ্চিত করতে বৈশ্বিক সংস্থাগুলোর সহযোগিতা নেওয়া যেতে পারে।

বাংলাদেশ থেকে রোহিঙ্গাদের ফেরত নেওয়া, রাখাইনে ফেরত নেওয়া রোহিঙ্গাদের জন্য নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করার সুপারিশ করে কমিশন বলেছে, যাদের ঘরবাড়ি ধ্বংস করা হয়েছে, প্রয়োজনে মিয়ানমার সরকার তাদের জন্য ঘরবাড়ি নির্মাণ করে দেবে।

বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের যৌথ বাণিজ্য কমিশনকে আরো সক্রিয় করে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য জোরদার করার সুপারিশ করেছে আনান কমিশন। সুপারিশে কমিশন বলেছে, পারস্পরিক বোঝাপড়া ও সহযোগিতা বাড়াতে মিয়ানমার ও বাংলাদেশ সরকার দুই দেশের মধ্যে সুধী সমাজের সফর বিনিময়, থিংক ট্যাংক, শিক্ষাবিদ ও বেসরকারি খাতের সফর বিনিময় করতে পারে।

আনান কমিশনের অন্তর্বর্তীকালীন প্রতিবেদনে বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক, চ্যালেঞ্জ এবং পারস্পরিক স্বার্থ ও সুবিধাদি নিয়ে আলোচনার জন্য একটি কমিশন গঠনের সুপারিশ করা হয়েছিল।

মিয়ানমার সরকার বাংলাদেশের সঙ্গে এ ধরনের কমিশন গঠনের আগ্রহ প্রকাশ করায় চূড়ান্ত প্রতিবেদনে একে স্বাগত জানিয়েছে কমিশন।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, এই যৌথ কমিশন অন্ততপক্ষে প্রতি তিন মাস অন্তর একবার করে বৈঠক করে বাণিজ্য সম্প্রসারণ, অবকাঠামো উন্নয়ন, দুই দেশের জনগণের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়ন, অবৈধ অভিবাসন ব্যবস্থাপনা, রোহিঙ্গাদের দলিলাদি তৈরি করা, মানবপাচার ও মাদকপাচার প্রতিরোধে যৌথভাবে উদ্যোগ নেওয়া এবং সহিংসতা প্রতিরোধে ভূমিকা রাখবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাখাইন রাজ্যের সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশের সঙ্গে মিয়ানমারের শক্তিশালী দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক থাকতে হবে। কারণ এক দেশের কোনো ঘটনা অন্য দেশকেও মারাত্মকভাবে প্রভাবিত করে।

২০১৬ সালে রাখাইনে সহিংসতার পর বিপুলসংখ্যক মুসলিম রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। সীমান্তের দুই পাড়েই মানবিক সহায়তা জরুরি হয়ে পড়েছে। তা সত্ত্বেও পারস্পরিক সহায়তার সুযোগ উভয় দেশের জন্যই স্বার্থ বয়ে আনবে।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ও পুলিশ রোহিঙ্গাদের উপর আক্রমণ করে। তখন প্রায় এক লাখ রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নেয়। ওই ঘটনার প্রেক্ষাপটেই আনান কমিশন গঠিত হয়।

কমিশন একটি অন্তর্বর্তী রিপোর্ট জমা দেয় গত মার্চে। এরপর গত ২৪ আগস্ট সুপারিশসহ চূড়ান্ত প্রতিবেদন মিয়ানমার সরকারের কাছে জমা দেওয়ার পর থেকে রোহিঙ্গাদের ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দিচ্ছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited