দুপুর ২:২৫ | রবিবার | ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

প্রাণ আপ

pran-up-add

কূটনীতিকদের নিরাপত্তা শঙ্কা এখনও কাটেনি

ঢাকায় কূটনৈতিক প্রতিবেদকদের সঙ্গে এক মতবিনিময়ে ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত মিকায়েল হেমনিতি উইন্টার বলেছেন, “ঝুঁকি বিচার করতে গেলে আমরা এখনও ঝুঁকিটা অনুভূব করি। আমাদের চলাফেলায় এখনও সতর্কতা বজায় রাখতে হয়।”

গতবছর অক্টোবরে ডেনমার্কের ব্যাংকক মিশন থেকে উইন্টার যখন ঢাকার দায়িত্বে আসেন, তার ঠিক এক মাস আগেই গুলশানের কূটনৈতিক পাড়ায় ভয়াবহ ওই জঙ্গি হামলায় নিহত হন ১৭ বিদেশি নাগরিকসহ ২২ জন।

পরে গত জানুয়ারিতে এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেছিলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে ডেনমার্কের সম্পৃক্ততার ক্ষেত্রে হলি আর্টিজানের ওই ঘটনা কোনো প্রভাব ফেলতে পারবে না। দুই দেশের বন্ধুত্ব আরও দৃঢ় করতেই তিনি কাজ করবেন।

মঙ্গলবার ঢাকায় কূটনৈতিক প্রতিবেদকদের সংগঠন ডিক্যাবের আয়োজনে ‘ডিক্যাব টকে’ অংশ নিয়ে ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশে গুলশান হামলার মত ঘটনা আর না ঘটায় বিদেশি কূটনীতিকরা মানসিকভাবে স্বস্তি অনুভব করছেন। পাশাপাশি এই অনুভূতিও তাদের রয়েছে যে বিদেশিরা এখনও জঙ্গি হামলার হুমকিতে আছেন।

অবশ্য এই ঝুঁকি যে বিশ্বের অনেক দেশেই রয়েছে, সে কথাও বলেন ড্যানিশ দূত। তার ভাষায়, কয়েকটি দেশের গোয়েন্দা কার্যক্রম ‘ভালো’ হলেও মোটামুটি বিশ্বের ১৪০টি দেশে কম বেশি নিরাপত্তা ঝুঁকি রয়েছে।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের অর্জনের পরপরই ঢাকা এবং কোপেনেহেগেনের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা হয়। বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেওয়া ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে থেকে প্রথমসারিতে ছিল ডেনমার্ক। ১৯৭২ সালে দেশটি ঢাকায় দূতাবাস খোলে।

সম্প্রতি দুই দেশের মধ্যে তিনবছর মেয়াদী কৌশলগত খাতে সহায়তা বিষয়ক চুক্তি এবং পাঁচ বছর মেয়াদী উন্নয়ন সহযোগিতা বিষয়ক চুক্তি হয়েছে।এর মধ্যে দিয়ে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরো জোরদার হয়েছে।

গতবছর পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলীর ডেনমার্ক সফরের সময় দুই দেশ সবুজ প্রবৃদ্ধি, জলবায়ু পরিবর্তন, উন্নয়ন, বাণিজ্য এবং বিনিয়োগসহ দ্বিপক্ষীয় স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করতে সম্মত হয়।

রাষ্ট্রদূত বলেন, দারিদ্র্য নিরসন এবং আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ ‘উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি’ অর্জন করেছে।

অন্যতম উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে ডেনমার্ক বাংলাদেশে পানি, পয়ঃনিষ্কাশন, কৃষি, মানবাধিকার ও বিভিন্ন উন্নয়ন ক্ষেত্রে সহযোগিতা দিয়ে আসছে।

ডেনমার্কে শুল্কমুক্ত বাজার সুবিধা ভোগ করায় দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যের ক্ষেত্রেও সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ।

দেশটিতে তৈরি পোশাক বাংলাদেশের প্রধান রপ্তানি পণ্য হলেও ওষুধ, সিরামিক পণ্য এবং চামড়াপণ্য রপ্তানির বাজারও খোঁজা হচ্ছে।

মতবিনিময়ে রাষ্ট্রদূত মিকায়েল জানান, বাংলাদেশের সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় যেসব খাতের উন্নয়নকে অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে, সেভাবেই তাদের উন্নয়ন সহযোগিতা দেওয়ার পরিকল্পনা সাজানো হয়েছে।

‘সবুজ প্রবৃদ্ধি’ অর্জনে ডেনমার্কের অভিজ্ঞতার কথাও জানান তিনি।

এ বিষয়ে ডেনমার্কের দক্ষতা বিশ্বজুড়েই স্বীকৃত। বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে দেশটি ২০৫০ সালের মধ্যে জীবাশ্ম জ্বালানির পরিবর্তে নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবহার শুরুর লক্ষ্য নিয়েছে।

মতবিনিময় সভা পরিচালনা করেন ডিক্যাবের সভাপতি রেজাউল করিম লোটাস ও সাধারণ সম্পাদক পান্থ রহমান

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» গঙ্গাচড়ায় শিক্ষার্থীদের মাঝে টিফিন ক্যারিয়ার বিতরণ

» রাণীরবন্দরে গ্রাম বিদ্যুতবিদ কল্যাণ সমিতির উদ্যেগে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে অর্থ প্রদান

» কুড়িগ্রামে ৪জন রোহিঙ্গাকে শরনার্থী শিবিরে ফেরত পাঠানো হলো

» অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে চরফ্যাশনে চার শতাধিক মেধাবী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও শিক্ষাবৃত্তি দিলেন উপমন্ত্রী-জ্যাকব

» লালমনিরহাটে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য প্রথম আলো বন্ধুসভার মানববন্ধন

» ঠাকুরগাঁওয়ে ৪র্থ শ্রেণির শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা!

» লালমনিরহাটে দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতু খুলে দেয়ার দাবি বন্যার্তদের

» হুয়াওয়ের ফুল ভিউ ডিসপ্লে নতুন ফোন

» ইসলামে মেয়েদের চাকরির অনুমতি আছে কি? ব্যাখ্যা জাকির নায়েকের

» বেকারত্ব দূরীকরণে দেশীয় পদ্ধতিতে গরু মোটাতাজাকরণ

» বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন অমর সিং? জল্পনা উসকে দিলেন বহিষ্কৃত সপা নেতা

» মিয়ানমারকে ঢাকার সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ার সুপারিশ করেন || কফি আনান

» চেন্নাইতে সেঞ্চুরি না করেও সেঞ্চুরি পেলেন ধোনি!

» বিল গেটসের সফলতার দশ সুত্র

» চিকিৎসা শেষেই দেশে ফিরবেন বেগম খালেদা জিয়া

Biggapon

Biggapon

সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

,

কূটনীতিকদের নিরাপত্তা শঙ্কা এখনও কাটেনি

ঢাকায় কূটনৈতিক প্রতিবেদকদের সঙ্গে এক মতবিনিময়ে ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত মিকায়েল হেমনিতি উইন্টার বলেছেন, “ঝুঁকি বিচার করতে গেলে আমরা এখনও ঝুঁকিটা অনুভূব করি। আমাদের চলাফেলায় এখনও সতর্কতা বজায় রাখতে হয়।”

গতবছর অক্টোবরে ডেনমার্কের ব্যাংকক মিশন থেকে উইন্টার যখন ঢাকার দায়িত্বে আসেন, তার ঠিক এক মাস আগেই গুলশানের কূটনৈতিক পাড়ায় ভয়াবহ ওই জঙ্গি হামলায় নিহত হন ১৭ বিদেশি নাগরিকসহ ২২ জন।

পরে গত জানুয়ারিতে এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেছিলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে ডেনমার্কের সম্পৃক্ততার ক্ষেত্রে হলি আর্টিজানের ওই ঘটনা কোনো প্রভাব ফেলতে পারবে না। দুই দেশের বন্ধুত্ব আরও দৃঢ় করতেই তিনি কাজ করবেন।

মঙ্গলবার ঢাকায় কূটনৈতিক প্রতিবেদকদের সংগঠন ডিক্যাবের আয়োজনে ‘ডিক্যাব টকে’ অংশ নিয়ে ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশে গুলশান হামলার মত ঘটনা আর না ঘটায় বিদেশি কূটনীতিকরা মানসিকভাবে স্বস্তি অনুভব করছেন। পাশাপাশি এই অনুভূতিও তাদের রয়েছে যে বিদেশিরা এখনও জঙ্গি হামলার হুমকিতে আছেন।

অবশ্য এই ঝুঁকি যে বিশ্বের অনেক দেশেই রয়েছে, সে কথাও বলেন ড্যানিশ দূত। তার ভাষায়, কয়েকটি দেশের গোয়েন্দা কার্যক্রম ‘ভালো’ হলেও মোটামুটি বিশ্বের ১৪০টি দেশে কম বেশি নিরাপত্তা ঝুঁকি রয়েছে।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের অর্জনের পরপরই ঢাকা এবং কোপেনেহেগেনের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা হয়। বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেওয়া ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে থেকে প্রথমসারিতে ছিল ডেনমার্ক। ১৯৭২ সালে দেশটি ঢাকায় দূতাবাস খোলে।

সম্প্রতি দুই দেশের মধ্যে তিনবছর মেয়াদী কৌশলগত খাতে সহায়তা বিষয়ক চুক্তি এবং পাঁচ বছর মেয়াদী উন্নয়ন সহযোগিতা বিষয়ক চুক্তি হয়েছে।এর মধ্যে দিয়ে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরো জোরদার হয়েছে।

গতবছর পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলীর ডেনমার্ক সফরের সময় দুই দেশ সবুজ প্রবৃদ্ধি, জলবায়ু পরিবর্তন, উন্নয়ন, বাণিজ্য এবং বিনিয়োগসহ দ্বিপক্ষীয় স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করতে সম্মত হয়।

রাষ্ট্রদূত বলেন, দারিদ্র্য নিরসন এবং আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ ‘উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি’ অর্জন করেছে।

অন্যতম উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে ডেনমার্ক বাংলাদেশে পানি, পয়ঃনিষ্কাশন, কৃষি, মানবাধিকার ও বিভিন্ন উন্নয়ন ক্ষেত্রে সহযোগিতা দিয়ে আসছে।

ডেনমার্কে শুল্কমুক্ত বাজার সুবিধা ভোগ করায় দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যের ক্ষেত্রেও সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ।

দেশটিতে তৈরি পোশাক বাংলাদেশের প্রধান রপ্তানি পণ্য হলেও ওষুধ, সিরামিক পণ্য এবং চামড়াপণ্য রপ্তানির বাজারও খোঁজা হচ্ছে।

মতবিনিময়ে রাষ্ট্রদূত মিকায়েল জানান, বাংলাদেশের সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় যেসব খাতের উন্নয়নকে অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে, সেভাবেই তাদের উন্নয়ন সহযোগিতা দেওয়ার পরিকল্পনা সাজানো হয়েছে।

‘সবুজ প্রবৃদ্ধি’ অর্জনে ডেনমার্কের অভিজ্ঞতার কথাও জানান তিনি।

এ বিষয়ে ডেনমার্কের দক্ষতা বিশ্বজুড়েই স্বীকৃত। বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে দেশটি ২০৫০ সালের মধ্যে জীবাশ্ম জ্বালানির পরিবর্তে নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবহার শুরুর লক্ষ্য নিয়েছে।

মতবিনিময় সভা পরিচালনা করেন ডিক্যাবের সভাপতি রেজাউল করিম লোটাস ও সাধারণ সম্পাদক পান্থ রহমান

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited