দুপুর ১২:৩৯ | বুধবার | ১৭ই জানুয়ারি, ২০১৮ ইং | ৪ঠা মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

প্রাণ আপ

pran-up-add

একটু সহযোগিতা পেলে পড়াশুনা করবো || আমি বিয়ে করতে চাইনা

শাহিনুর ইসলাম প্রান্ত,
লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

“পড়াশুনার করার অনেক ইচ্ছে কিন্তু উপায় নেই। বাবা বিয়ে দেওয়ার জন্য ছেলে খুঁজছেন। রিক্শা চালক বাবার পক্ষে লেখা পড়ার খরচ বহন করার মত সামর্থ নেই। প্রতিবেশীরা প্রায়ই বাবা-মাকে বলছে মেয়ের এত পড়াশুনা করে লাভ কি ? তাই এবার বিয়ের পিঁড়িতে বসতে হয় বুঝি।

বিয়ে করতে চাইনা একটু সহযোগিতা পেলে হয়তো পড়াশুনাটা চালিয়ে যেতাম”। মনের চাপা ক্ষোভ এভাবেই প্রকাশ করছেন অদম্য মেধাবী শিক্ষার্থী মেরিনা সুলতানা।

সে এবার হাতীবান্ধা এস এস মডেল হাই স্কুল এ্যান্ড টেকনিক্যাল কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় বানিজ্য বিভাগ থেকে জিপিএ ৪.৯৬ অর্জন করেন। মাত্র ৪ পয়েন্টে জন্য জিপিয়ে ৫ জোটেনি মেধাবী শিক্ষার্থী মেরিনা সুলতানার।

সে লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার সিংঙ্গীমারী ইউনিয়নের উত্তর সিংঙ্গীমারী গ্রামের রিক্শা চালক সিরাজুল ইসলাম ও খোতেজা বেগমের মেয়ে। সিরাজুল ইসলাম (৪০) একমাস আগে ঢাকায় রিকশা চালাতে গিয়ে বগুড়া শেরপুর এলাকায় সড়ক দূর্ঘাটনায় আহত হয়ে বাড়িতে পরে আছেন। বর্তমানে কাজ কর্ম করতে না পারায় ছেলে মেয়েদের নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

তাদের অভাব অনাটনের সংসার। দিন এনে দিন খান। যে আয় হত সংসারের ভরণপোষন ও দুই ছেলে-মেয়ের লেখা পড়ার খরচ বহন করতে হিমশিম খেত। বাড়ি ভিটে ৫ শতক জমির উপর একটি মাত্র টিনের কুঁড়েঘর। সেই ঘরেই ঘুমায় সবাই একত্রে। ছোট ভাই খোরশেদ আলম সপ্তম শ্রেণীতে পড়েন হাতীবান্ধা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে।

কুপির আগুনে রাত জেগে পড়াশোনা চালাতো মেরিনা সুলতানা। প্রাইভেট পড়ার সামর্থ্য ছিল না। ৪ কিলোমিটার দুরে পায়ে হেটে কলেজে যেত সে। ভাল খাবার আর ভাল পোষাক জুটেনি কোন দিন। তার পরও হার মানেনি দারিদ্রেতার কাছে। সে শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে দারিদ্রতা দূর করে দুঃখী পিতা মাতার মুখে হাসি ফোটাতে যান। সে ভবিষ্যতে ব্যাংকার হওয়ার স্বপ্ন দেখেন।

কিন্তু সেই স্বপ্নে একমাত্র বাধাঁ হয়ে আছে আগামী দিনের পড়াশোনার খরচ। তাই বর্তমানে সাফল্যে এলেও ভবিষ্যতের স্বপ্ন পূরণে শংকা কাটছে না অদম্য মেধাবী মেরিনা সুলতানার।

মেরিনা সুলতানার মা খোতেজা বেগম বলেন, টাকা পয়সা নেই কি দিয়া মেয়েকে পড়াশুনা করাই। তাই বিয়ে দেওয়ার জন্য ছেলে খুঁজছি। যদি কেউ তার পড়াশুনার জন্য সাহায্য করত তাহলে মেয়েকে বিয়ে না দিয়ে পড়াশুনা করাতাম।

হাতীবান্ধা এস এস মডেল হাই স্কুল এ্যান্ড টেকনিক্যাল কলেজের প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম প্রধান জুয়েল বলেন, মেরিনা সুলতানা দরিদ্র হলেও মেধাবী। কোন প্রতিষ্ঠান বা সংস্থার তাকে সহায়তা করলে তার কাংক্ষিত লক্ষে পৌঁছতে পারবে।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» একটি বাড়ী একটি খামার প্রকল্পের নিয়োগ পরীক্ষার প্রবেশপত্র প্রকাশিত

» আইফোন ও স্যামসাংকেও হার মানাবে হুয়াওয়ের মেট ১০!

» মাত্র ৭,৮৯০ টাকায় ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারযুক্ত ‘ওয়াল্টনের প্রিমো এইচএম৪’

» ডিএনসিসির মনোনয়ন ফরম বিক্রি করছে আ’লীগ

» সারাদেশে শৈত্যপ্রবাহ অব্যাহত

» সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে ঢাবিতে বিক্ষোভ

» বাংলাদেশ দুর্নীতি দমন কমিশনে শূন্য পদে নিয়োগ

» মিয়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের

» নতুন রূপে এলো নকিয়া সিক্সে-২০১৮ এডিশন

» তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম ও তথ্য সচিব নাসির উদ্দিন আহমেদকে বনপা’র অভিনন্দন

» দাবাং থ্রি-তে-সালমানের নায়িকা বাঙালি-মৌনী

» চলচ্চিত্রের সফলতার চেয়ে আলোচনা ছিল বেশি

» বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভা ৬ জানুয়ারি

» বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের নতুন নতুন সব উদ্ভাবন

» সৌদি প্রবাসীর কথিত স্ত্রী ও শ্বশুর-শাশুড়ি আটক

Biggapon

Biggapon

সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

,

একটু সহযোগিতা পেলে পড়াশুনা করবো || আমি বিয়ে করতে চাইনা

শাহিনুর ইসলাম প্রান্ত,
লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

“পড়াশুনার করার অনেক ইচ্ছে কিন্তু উপায় নেই। বাবা বিয়ে দেওয়ার জন্য ছেলে খুঁজছেন। রিক্শা চালক বাবার পক্ষে লেখা পড়ার খরচ বহন করার মত সামর্থ নেই। প্রতিবেশীরা প্রায়ই বাবা-মাকে বলছে মেয়ের এত পড়াশুনা করে লাভ কি ? তাই এবার বিয়ের পিঁড়িতে বসতে হয় বুঝি।

বিয়ে করতে চাইনা একটু সহযোগিতা পেলে হয়তো পড়াশুনাটা চালিয়ে যেতাম”। মনের চাপা ক্ষোভ এভাবেই প্রকাশ করছেন অদম্য মেধাবী শিক্ষার্থী মেরিনা সুলতানা।

সে এবার হাতীবান্ধা এস এস মডেল হাই স্কুল এ্যান্ড টেকনিক্যাল কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় বানিজ্য বিভাগ থেকে জিপিএ ৪.৯৬ অর্জন করেন। মাত্র ৪ পয়েন্টে জন্য জিপিয়ে ৫ জোটেনি মেধাবী শিক্ষার্থী মেরিনা সুলতানার।

সে লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার সিংঙ্গীমারী ইউনিয়নের উত্তর সিংঙ্গীমারী গ্রামের রিক্শা চালক সিরাজুল ইসলাম ও খোতেজা বেগমের মেয়ে। সিরাজুল ইসলাম (৪০) একমাস আগে ঢাকায় রিকশা চালাতে গিয়ে বগুড়া শেরপুর এলাকায় সড়ক দূর্ঘাটনায় আহত হয়ে বাড়িতে পরে আছেন। বর্তমানে কাজ কর্ম করতে না পারায় ছেলে মেয়েদের নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

তাদের অভাব অনাটনের সংসার। দিন এনে দিন খান। যে আয় হত সংসারের ভরণপোষন ও দুই ছেলে-মেয়ের লেখা পড়ার খরচ বহন করতে হিমশিম খেত। বাড়ি ভিটে ৫ শতক জমির উপর একটি মাত্র টিনের কুঁড়েঘর। সেই ঘরেই ঘুমায় সবাই একত্রে। ছোট ভাই খোরশেদ আলম সপ্তম শ্রেণীতে পড়েন হাতীবান্ধা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে।

কুপির আগুনে রাত জেগে পড়াশোনা চালাতো মেরিনা সুলতানা। প্রাইভেট পড়ার সামর্থ্য ছিল না। ৪ কিলোমিটার দুরে পায়ে হেটে কলেজে যেত সে। ভাল খাবার আর ভাল পোষাক জুটেনি কোন দিন। তার পরও হার মানেনি দারিদ্রেতার কাছে। সে শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে দারিদ্রতা দূর করে দুঃখী পিতা মাতার মুখে হাসি ফোটাতে যান। সে ভবিষ্যতে ব্যাংকার হওয়ার স্বপ্ন দেখেন।

কিন্তু সেই স্বপ্নে একমাত্র বাধাঁ হয়ে আছে আগামী দিনের পড়াশোনার খরচ। তাই বর্তমানে সাফল্যে এলেও ভবিষ্যতের স্বপ্ন পূরণে শংকা কাটছে না অদম্য মেধাবী মেরিনা সুলতানার।

মেরিনা সুলতানার মা খোতেজা বেগম বলেন, টাকা পয়সা নেই কি দিয়া মেয়েকে পড়াশুনা করাই। তাই বিয়ে দেওয়ার জন্য ছেলে খুঁজছি। যদি কেউ তার পড়াশুনার জন্য সাহায্য করত তাহলে মেয়েকে বিয়ে না দিয়ে পড়াশুনা করাতাম।

হাতীবান্ধা এস এস মডেল হাই স্কুল এ্যান্ড টেকনিক্যাল কলেজের প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম প্রধান জুয়েল বলেন, মেরিনা সুলতানা দরিদ্র হলেও মেধাবী। কোন প্রতিষ্ঠান বা সংস্থার তাকে সহায়তা করলে তার কাংক্ষিত লক্ষে পৌঁছতে পারবে।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলীঃ-

সম্পাদকঃ এ, বি মালেক (স্বপ্নিল)
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ লতিফুল ইসলাম
উপদেষ্টাঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন
আইটি উপদেষ্টাঃ মাহির শাহরিয়ার শিশির
আইটি সম্পাদকঃ আসাদ্দুজামান সাগর
প্রকাশক ও নির্বাহী পরিচালক (CEO):
ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)

যোগাযোগঃ-

৮৬৮ কাজীপাড়া, মিরপুর-১০, মিরপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ-১২১৬।
ইমেইলঃ info@dailynewsbd24.com, dailynewsbd247@gmail.com,
ওয়েবঃ www.dailynewsbd24.com
মোবাইলঃ +৮৮-০১৯৯৩৩৩৯৯৯৪-৯৯৬,
+৮৮-০১৭২১৫৬৭৭৮৯

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited